ভিডিও

নকল ডিমের পাশাপাশি বাজারে এবার প্লাষ্টিকের চাল !

নকল ডিমের পাশাপাশি বাজারে এবার প্লাষ্টিকের চাল !

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রয়োজন এমন কোন পণ্য নেই যা চীনে উৎপাদন করা হয় না। অনেক দামী পণ্য একদম সস্তায় আমাদের হাতের নাগালে নিয়ে এসেছে চীন। তাই চীনে উৎপাদিত পণ্য যেমন সারা বিশ্বের জন্য আশীর্বাদ ঠিক তেমনি এই চীনেই এমন অনেক পণ্য উৎপাদিত হয় যা আমাদের জন্য ভয়াবহ ক্ষতিকর এবং প্রাণঘাতি। একটু সাবধান না হলেই অপেক্ষা করছে ভীষণ বিপদের। মুক্তমঞ্চ.কম এর সাম্প্রতিক অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে প্লাষ্টিক চাল এবং কৃত্রিম ডিম সম্পর্কে অনেক চাঞ্চল্যাকর তথ্যঃ

প্লাষ্টিক চালঃ

বাজারে গিয়ে প্রিমিয়াম চাল, চকচকে বা শাইনি এবং একদম ফ্রেশ মনে করে কিনে আনলেন মিনিকিট বা ভালো বাঁশকাঠি চাল। রান্নাকরা হলো সে ভাত ফুটলও। দিব্য খেয়ে ফেললেন। কিন্তু, জানলেনও না, আপনি যে চালের ভাত খেলেন, সেটা কৃত্রিম চাল, আসলে প্লাস্টিক ছাড়া কিছু নয়। যেটা আপনিসহ আপনার পরিবারের স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্বক ক্ষতিকর।তা অবিশ্বাস আপনি করতেই পারেন, কিন্তু, চীন এ ভাবেই নকল প্লাস্টিকের চালে এশিয়ার বাজার ধরে নিচ্ছে। এমনকী যারা চালের পাঁকা কারবারি, দিনরাত চাল নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করেন, তারাও ধরতে পারছেন নাচীনের এই চালাকি। আর পাঁচটা চাইনিজ জিনিস যেমন সস্তায় মেলে, তেমন সস্তায় চাল কিনে, ব্যাপক মুনাফা করতে সেই নকল চালই বিক্রি করছে ব্যবসায়ীরা।

যে কোন বস্তু নকলে চীন বরাবরই এক্সপার্ট। এমনকী ভেজাল খাবারে তৈরীতেও। আপনি ভাববেন না, এশিয়ার বাজার মানে আপনি নিরাপদ। কারণ, ভারতের বাজারেও দেদারছে পাওয়া যাচ্ছে এই সস্তার চাল। সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া ও ভিয়েতনামেওনাকি এই চাল অহরহ পাওয়া যাচ্ছে। চীনের এই প্লাষ্টিক চালের সবথেকে বড় মার্কেট ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্টসহ আফ্রিকার পুরো বাজার। প্লাষ্টিক ফাইবার থেকে বিশেষ মেশিনে বিশেষভাবে প্রস্তুত এই চাল যখন বস্তা ভরা হয় তখন এই চাল দেখতে একদম প্রিমিয়াম মিনিকেট চালের মতো মনে হয়। খুব মনযোগী হয়ে চাল না কিনলে পুরো ধরা খাওয়ার সম্ভাবনা আছে। তাই যেকোন চালকেই প্রিমিয়াম চাল মনে না করে খুব ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে তারপর কেনার পরামর্শ দিয়েছে বিশেষজ্ঞরা। কারন এই চাল বাসায় নিয়ে রান্না করে খেলে আপনার লিভার এবং কিডনী দুটাই অকেজো হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

অতি সম্প্রতি ভারতের কেরালা রাজ্যে এমন নকল চাল প্রথমে নজরে আসে। তখনই সাংবাদিকেরা ভালোভাবে খোঁজ নিয়ে জানতে পারে, চীন থেকে এইসব নকল চালের দেদার আমদানি হচ্ছে। ফাইবার প্লাস্টিকের সঙ্গে আলু ও রাঙাআলু মিশিয়ে বিশেষভাবে তৈরি হচ্ছে এই নকল চাল। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সাবধান করে জানিয়েছেন, এই প্লাস্টেকের চাল কিন্তু শরীরের পক্ষে মোটেও সুখের নয়। নিয়মিত খেলে যে কেউ মারা যেতেপারে।

প্লাষ্টিকের চাল বা নকল চাল চেনার উপায় হচ্ছে

নকল চাল চেনার সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছেকিছু পরিমান এই চাল নিয়ে আপনি যদি সরাসরি আগুনের মধ্যে ধরুন, তাহলে এগুলো দলা পাকিয়ে যাবেন, যেহেতু স্টেরিফোম টাইপের প্লাষ্টিক দিয়ে তৈরি এই চাল সেহেতু আগুনের মধ্যে সহজেই গলে যায়, অন্যদিকে সাধারন চাল আগুনে পুড়লেও দলা পাকিয়ে যাবে না এছাড়াও এই প্লাষ্টিকের চাল আগুনে ধরলে খুবই গন্ধ বের হবে, যেটা ভাত পুরলে হবে না।

'সবধরনের ভিডিও রেসিপি দেখতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুণ!'


বিঃ দ্রঃ মজার মজার রেসিপি ও টিপস, রেগুলার আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি রমণী



Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

সর্বোচ্চ পঠিত

BD Romoni YouTube Channel
To Top