ফ্যাশন

মেহেদির রঙ গাঢ় এবং হালকা করার নিয়ম

মেহেদির রঙ গাঢ় এবং হালকা করার নিয়ম

সামনে ঈদ আর ঈদের ২/১ দিন আগে থেকেই শুরু হয়ে যায় সব মেয়েদের মেহেদি লাগানো। কেউ পার্লারে, কেউ অভিজ্ঞ কারও কাছে, আবার কেউ নিজের হাতে নিজেই দিয়ে থাকেন। কিন্তু এত কষ্ট করে মেহেদি দেয়ার পর যদি রঙ টাই ঠিক মত না হয় তাহলে পুরো আনন্দটাই মাটি হয়ে যায়। তাই এখানে মেহেদির রঙ গাঢ় করার কয়েকটি নিয়ম দেয়া হলো আবার রঙ হাত থেকে কীভাবে তুলবেন সেটাও বলা হলো –

মেহেদির রঙ গাঢ় করার উপায়

০১. মেহেদি লাগানোর পরে যখন মেহেদি একটু একটু করে শুকাতে শুরু করবে তখন একটি পাত্রে সামান্য লেবুর রস আর চিনি মিশিয়ে তুলার বল দিয়ে রস টা নিয়ে হাতে মিশ্রণটি লাগান। মেহেদির উপর ঘষা ঘষি করবেন না। আলতো করে শুকিয়ে যাওয়া মেহেদির একটু উপর থেকে তুলার বল চিপে ফোটা ফোটা করে লেবু আর চিনির মিশ্রণটি পুরো হাতে লাগাবেন। লেবুর রস মেহেদির রঙটা পুরোপুরি মেহেদির পেস্ট থেকে বের করতে সাহায্য করে আর চিনি সেই রঙ আর মেহেদি অনেক্ষণ হাতে আটকে রাখতে সাহায্য করে। নিচে মেহেদির উপর লেবু আর চিনির মিশ্রণ দেয়ার ফলে যেরকম রঙ হয় সেই ছবি দেয়া হলো –

০২. রাতে ঘুমাতে যাওয়ার ২/৩ ঘণ্টা আগে লাগান, এবং সারা রাত হাতে মেহেদি রেখে দিন। মেহেদি শুকিয়ে গেলেও হাত ধুবেন না। আপনা আপনি কিছু পড়ে যাবে আর বাকি গুলো হাতে রেখেই ঘুমাতে পারেন অথবা হাত ঘষে মেহেদি ফেলে দিতে পারেন। অন্তত ৮ ঘণ্টা পানি থেকে হাত দূরে রাখুন। যত দেরীতে পানি লাগাবেন হাতে তত বেশি রঙ গাঢ় হবে।

০৩. রঙ গাঢ় করার আরেকটি উপায় হলো চুলার কাছে দাঁড়িয়ে মেহেদি শুকানো অথবা হেয়ার ড্রায়ারের সাহায্যে মেহেদি শুকানো। শুকিয়ে গেলে মেহেদি ফেলে দিবেন না। লেবু আর চিনির মিশ্রণ দিয়ে যতক্ষণ পারেন রাখবেন।

০৪. পুরো হাতে চিকন করে ডিজাইন না করে কিছু কিছু ডিজাইন ভরাট করে দেয়া উচিত। তাহলে মেহেদির রঙ টা বেশি ফুটে উঠবে।

০৫. মেহেদি তুলে ফেলার পর Vicks Balm লাগান এবং ৪/৫ ঘণ্টা হাতে রেখে দিন। এতে নিলগিরি তেল থাকে যা রঙ গাঢ় করবে। আমি হাতের মেহেদি তুলে Vicks Balm দেয়ার পর মেহেদীর রঙ এরকম হয়েছে।

০৬. মেহেদি একটু শুকিয়ে আসা শুরু করলে জিরা ভেজানো পানিও দিতে পারেন। এতেও রঙ হবে।

০৭. ব্যথা কমানোর বিভিন্ন Balm দিলেও বলা হয় যে মেহেদির রঙ গাঢ় হয়। ধারণা করা হয় যে ব্যথা কমানোর Balm ত্বকের নিচে তাপ তৈরির মাধ্যমে মেহেদির রঙ গাঢ় করে তুলে।

০৮. চুলার উপর একটি শুকনো তাওয়ায় কয়েকটি লবঙ্গ রেখে দিন। মেহেদি তোলার পর হাত ২ টি গরম তাওয়া থেকে একটু দূরে রেখে হালকা ভাপ লাগান হাতে। এতে রঙ গাঢ় হবে।

০৯. মেহেদি পাতা সরাসরি বেটে হাতে দিলে অনেকের হাতে কমলা রঙ হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে নিচের যে কোনটি করা যাতে পারে –

• মেহেদি পাতা বাটার আগে মেহেদি পাতা গুলো সারা রাত গরম পানিতে ডুবিয়ে রাখতে হবে।

• চা পাতা জ্বাল দিয়ে সেটার মধ্যে সারা রাত মেহেদি পাতা বা মেহেদি গুঁড়ো রেখে দিন। পরের দিন বেটে হাতে লাগালে গাঢ় রঙ হবে।

• এক চা চামচ কফি পাউডার মিশিয়ে নিন মেহেদি গুঁড়োর সাথে। এতেও মেহেদির রঙ গাঢ় হবে।

( এখানে ৮ এবং ৯ নাম্বার আমি নিজে চেষ্টা করে দেখিনি। এ তথ্য গুলো আমি বিভিন্ন ভাবে সংগ্রহ করেছি)

মেহেদির রঙ তুলে ফেলার উপায়ঃ

ঈদ অথবা বিয়ের অনুষ্ঠান সব শেষ কিন্তু মেহেদির রঙ যাচ্ছেনা। এ অবস্থায় কি করবেন? সাধারণত যারা ধোয়া মোছার কাজ বেশি করেন, রান্নার কাজ করেন তাদের হাত থেকে খুব সহজেই মেহেদির রঙ উঠে যায়। কিন্তু যারা এসব কাজ করেন না, তারা অন্য ভাবে হাত থেকে রঙ তুলতে পারেন। যেমন –

০১. যে কোন ব্লিচ ক্রিম হাতে লাগিয়ে শুকিয়ে নিন। এরপর হাত ঘষে দেখুন মেহেদির রঙ অনেকটাই হালকা হয়ে গিয়েছে।

০২. বেকিং সোডার সাথে লেবুর রস মিশিয়ে হাতের লাগান, শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

০৩. দোকানের মেহেদি দিলে ঘন ঘন ২/১ দিন সাবান দিয়ে হাত ধুলেই চলে যাবে তবে সেক্ষেত্রে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে হাতে।

০৪. টুথপেস্ট হাতে মেখে শুকিয়ে নিন। তারপর ২ হাত ঘষলে দেখবেন মেহেদির রঙ উঠে আসছে।

মেহেদি লাগানোর ক্ষেত্রে সতর্কতাঃ

• কালো মেহেদি ত্বকের জন্য ভালো নয়, তাই এটি ব্যবহার না করাই ভালো।

• মেহেদির কোন কেনার সময় সেটার মেয়াদ দেখে কিনুন। পুরনো হলে রঙ হবে না একটু-ও।

• পার্লারে গিয়ে মেহেদি লাগাতে চাইলে আগে দেখে নিন ভালো নতুন মেহেদি দিচ্ছে কিনা। প্রয়োজনে নিজেই মেহেদি কোন কিনে নিয়ে যান।

• মেহেদির কোন ফ্রিজে রেখে দিলে হাতে দেয়ার আগে কিছুক্ষণ স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রেখে দিন। তারপর হাতে লাগান।

• শিশুদের হাতে দিতে চাইলে দোকানের মেহেদি না দিয়ে বাসায় বেটে সেই মেহেদি দিন। হয়ত খুব সুক্ষ ডিজাইন হবেনা, কিন্তু তারপরেও দিন কারণ আপনার শিশুর ত্বকের চাইতে মেহেদির ডিজাইন নিশ্চয়ই গুরুত্বপূর্ন নয়। এখন বিভিন্ন মেহেদি পাওয়া যাচ্ছে যা ৫ মিনিটেই অনেক গাঢ় রঙ হয়ে যায়, কিন্তু এগুলো শিশুদের হাতে ঘন ঘন লাগানো উচিত না, যেহেতু এগুলোতে প্রচুর কেমিকেল থাকে। এমন কি বড়দের-ও ৫ মিনিটে রঙ হয় এমন মেহেদি ব্যবহার করা ঠিক না। এগুলো দিলে অনেক সময় হাত খসখসে হয়ে যায় এবং আঙ্গুলে ঝিম ঝিম করতে থাকে। তাছাড়া এগুলো যত তাড়াতাড়ি রঙ হয় ঠিক তত তাড়াতাড়ি এগুলোর রঙ চলে যায়।

'বাসার বাজার করেছেন তো? বাজার করুন চালডালে - সময় বাচাঁন, খরচ বাচাঁন। সেরা দামে সবকিছু মাত্র এক ঘন্টায়।'


বিঃ দ্রঃ মজার মজার রেসিপি ও টিপস, রেগুলার আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি রমণী



Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বোচ্চ পঠিত

BD Romoni YouTube Channel
To Top