জানা-অজানা

ফ্রীজ ঠিক করতে গিয়ে বাসায় একা থাকা অস্টম শ্রেনী পড়ুয়া কিশোরীকে ধর্ষণ!

ফ্রীজ ঠিক করতে গিয়ে বাসায় একা থাকা অস্টম শ্রেনী পড়ুয়া কিশোরীকে ধর্ষণ!

বাসায় নষ্ট ফ্রিজ ঠিক করতে গিয়ে ৮ম শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শামীম মিয়া নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে । কুমিল্লার সদর উপজেলার এই ঘটনায় ঘটনার শিকার স্কুলছাত্রীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ কৌশলে বুধবার দুপুরে ধর্ষক শামীমকে চৌদ্দগ্রাম বাজার থেকে আটক করেছে।
এর আগে ঘটনাটি মিমাংশার চেষ্টাকালে ইউপি মেম্বার রিয়াজ উদ্দিনকেও আটক করা হয়। উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের গুজরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আমাদের এনড্রয়েড মোবাইল এপস। বাছাই করা সেরা ১০১ পিঠার রেসিপি। ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুণ!

ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রীর বাবার দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে তিনি পরিবার নিয়ে গুজরা গ্রামে এডভোকেট লতিফের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। গত মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) রাতে বাসায় নষ্ট ফ্রিজ ঠিক করতে পাশ্ববর্তী তুলাপুস্করণী গ্রামের আবদুল মোতালেবের পুত্র শামীম মিয়াকে খবর দেয়া হয়। পরে সময়মত না আসায় পারিবারিক একটি কাজে সবাই বাইরে চলে যান। এসময় বাসায় একাই ছিলো তাদের স্কুলপড়ুয়া মেয়ে। ঘটনার দিন শামীম মিয়া ফ্রিজ ঠিক করতে এসে ঐ বাসায় স্কুলছাত্রীকে একা দেখতে পেয়ে জোরপূর্বক মেয়েটির মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে।
স্কুলছাত্রীর পারিবারিক সুত্রমতে এসময় মেয়েটি মারাত্মক ভয় পেয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে শামীম এই ঘটনা কাউকে না জানাতে হুমকি দিয়ে মেয়েটিকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজন বাসায় ফিরে এলে মেয়েটিকে অসুস্থ্য অবস্থায় স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

এরপর ঐ স্কুলছাত্রীর পরিবার এই ঘটনার বিচার চেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারদের জানালে স্থানীয় মেম্বার রিয়াজ উদ্দিন মিমাংশার আশ্বাসে ঘটনা নিয়ে গড়িমসি করতে থাকে। বাধ্য হয়ে ভুক্তভোগি পরিবার পুলিশের শরনাপন্ন হলে , পুলিশ মঙ্গলবার রিয়াজ উদ্দিন মেম্বারকে আটক করে। এরপর বুধবার ধর্ষক শামীম মিয়াকেও আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি আবুল ফয়সল সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, ‘কৌশলে ধর্ষক শামীমকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে স্থানীয় মেম্বার রিয়াজ উদ্দিনকে আটক করা হয়। ধর্ষণের ঘটনায় আটককৃতদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করা হয়েছে’।বাসায় নষ্ট ফ্রিজ ঠিক করতে গিয়ে ৮ম শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শামীম মিয়া নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে । কুমিল্লার সদর উপজেলার এই ঘটনায় ঘটনার শিকার স্কুলছাত্রীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ কৌশলে বুধবার দুপুরে ধর্ষক শামীমকে চৌদ্দগ্রাম বাজার থেকে আটক করেছে।
এর আগে ঘটনাটি মিমাংশার চেষ্টাকালে ইউপি মেম্বার রিয়াজ উদ্দিনকেও আটক করা হয়। উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের গুজরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রীর বাবার দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে তিনি পরিবার নিয়ে গুজরা গ্রামে এডভোকেট লতিফের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। গত মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) রাতে বাসায় নষ্ট ফ্রিজ ঠিক করতে পাশ্ববর্তী তুলাপুস্করণী গ্রামের আবদুল মোতালেবের পুত্র শামীম মিয়াকে খবর দেয়া হয়। পরে সময়মত না আসায় পারিবারিক একটি কাজে সবাই বাইরে চলে যান। এসময় বাসায় একাই ছিলো তাদের স্কুলপড়ুয়া মেয়ে। ঘটনার দিন শামীম মিয়া ফ্রিজ ঠিক করতে এসে ঐ বাসায় স্কুলছাত্রীকে একা দেখতে পেয়ে জোরপূর্বক মেয়েটির মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে।

স্কুলছাত্রীর পারিবারিক সুত্রমতে এসময় মেয়েটি মারাত্মক ভয় পেয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে শামীম এই ঘটনা কাউকে না জানাতে হুমকি দিয়ে মেয়েটিকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজন বাসায় ফিরে এলে মেয়েটিকে অসুস্থ্য অবস্থায় স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

এরপর ঐ স্কুলছাত্রীর পরিবার এই ঘটনার বিচার চেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারদের জানালে স্থানীয় মেম্বার রিয়াজ উদ্দিন মিমাংশার আশ্বাসে ঘটনা নিয়ে গড়িমসি করতে থাকে। বাধ্য হয়ে ভুক্তভোগি পরিবার পুলিশের শরনাপন্ন হলে , পুলিশ মঙ্গলবার রিয়াজ উদ্দিন মেম্বারকে আটক করে। এরপর বুধবার ধর্ষক শামীম মিয়াকেও আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি আবুল ফয়সল সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, ‘কৌশলে ধর্ষক শামীমকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে স্থানীয় মেম্বার রিয়াজ উদ্দিনকে আটক করা হয়। ধর্ষণের ঘটনায় আটককৃতদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করা হয়েছে’।

'সবধরনের ভিডিও রেসিপি দেখতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুণ!'


বিঃ দ্রঃ মজার মজার রেসিপি ও টিপস, রেগুলার আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি রমণী



সর্বোচ্চ পঠিত

BD Romoni YouTube Channel
To Top